টেক রহস্য

আপনি কি জানেন, মোবাইলে এয়ারপ্লেন মোড অপশন কেন থাকে ???

মোবাইলে এয়ারপ্লেন মোড অপশন কেন থাকে :-

আপনি একটি বিমানে উঠেছেন।বিমানে ওঠার পরই বিমানসেবিকা ঘোষণা করেন, দয়া করে আপনাদের মোবাইল ফোনটি সুইচ অফ করুন। আপনি নিশ্চয়ই টুক করে সেই কাজটি করে নেন।কিন্তু, যারা বিমানে নতুন যাত্রী তারা হয়তো অবাকই হয়।

সিট বেল্ট লাগিয়ে আরাম করে বসেছেন এবং বিমানটি উড্ডয়নের জন্য প্রস্তুত ঠিক তখনই আপনি এই ঘোষণাটি শুনতে পাবেন, ‘মোবাইল ফোনসহ আপনার ইলেকট্রনিক যন্ত্র ডিভাইসের এয়ারপ্লেন মোডে অপশন অন করুন।’

সে সময়ে আপনাকে এটা দেখতে হবে, আপনার মোবাইল কি বন্ধ রয়েছে ,আর তা যদি না করেন তাহলে অবশ্যয় ফ্লাইট মোডে অন করতে হবে। কিন্তু আপনি যদি তারপরেও অন করতে ভুলে যান,তারপরেও আপনাকে একবার বিমানসেবিকাদের তরফ থেকে এক বার মনে করিয়ে দেওয়া হবে।

flight mode,bangla tech news

বেশিরভাগ মানুষই বিশ্বাস করে যে, এটা একটা সাধারণ নিয়মমাত্র এবং এই নিয়ম না মানলে তেমন কিছুই হবে না। আবার কিছু মানুষ এটা মনে করেন যে, এমনটা না করলে বিমান দুর্ঘটনা কবলে পরতে পারে এবং সবাই মারা যাবে। সত্য হলো, এই দুটির কনটিই ঠিক নয়।

 কেন বিমানের ফ্লাইটে থাকা অবস্থায় মোবাইল এয়ারপ্লেন মোডে রাখতে বলা হয় ? :- কারণ মোবাইলের সিগন্যাল ভূমিতে নেটওয়ার্কে জ্যাম সৃষ্টি করতে পারে। দ্রুত ভ্রমণের সময় এবং তা ১০ হাজার ফুটের বেশি হলে ফোনের সিগন্যাল বিভিন্ন টাওয়ারে যোগাযোগের চেষ্টা করে এবং শক্তিশালী সিগন্যাল প্রেরণ করে কারণ টাওয়ার থেকে দূর্বল সিগন্যাল পায়।মূলত, আপনার মোবাইল সবসময় নেটওয়ার্কে থাকতে বিভিন্ন মোবাইল টাওয়ারের সঙ্গে যোগাযোগ বজায় রাখতে চায়, এমনকি টাওয়ার দূরবর্তী স্থানে থাকলেও মোবাইল সিগন্যাল বৃদ্ধি করতে চেষ্টা করে যাতে টাওয়ারের সঙ্গে যোগাযোগ অক্ষুন্ন থাকে।

আরও পড়ুন ঃ- অমাজন ও ফ্লিপকার্টে শুরু হচ্ছে মহাসেল পাওয়া যাবে ৪০ % থেকে ৮০% পর্যন্ত ডিস্কাউন্ট

ফলে যখনই মোবাইল ফনের সিগন্যাল তার টাওয়ারের সাথে কানেকশন করতে চাই। ঠিক সেই সময়্ম ‘কোঁ-কোঁ’ শব্দ হতে পারে পাইলটের সাউন্ড সিস্টেমে। যদিও সাধারণ যাত্রীদের ফোন খোলা থাকলে তেমন সমস্যা না হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা। কেননা তারা ককপিটে যান না। কোনো অডিও সিস্টেম থেকে অপ্রীতিকর শব্দ হয়তো আপনি শুনেছেন যখন সেই অডিও সিস্টেমের পাশে মোবাইল ছিল। যেমন টিভির পাশে মোবাইল ফোন থাকলে দেখা যায়, ফোন আসলে টেলিভিশনের অডিও সিস্টেম থেকে বাজে একটা শব্দ শোনা যায়। কারণ ফোনের রেডিয়েশন অনেক সময় শক্তিশালী হতে পারে এবং তা ৮ ওয়াট পর্যন্ত। সুতরাং এবার একটু কল্পনা করুন তো, বিমানবন্দর থেকে একটি জরুরি বার্তার সময় মোবাইলের রেডিয়েশনের কারণে বিমানচালকের হেডসেটে সেই বাজে শব্দ সৃষ্টির বিষয়টি। এই বাজে শব্দ নিয়ে আরো কল্পনা করুন যে, সেই শব্দ যদি ১০০ যাত্রীর মোবাইল থেকে সৃষ্টি হতে থাকে। আপনি ভাবতে পারেন, তাহলে তা বিমানচালকের হেডসেটে কতটা বিরক্তিকর হতে পারে।

এছারা প্রধান সমস্যা যেটি সেটি হল মোবাইলের টাওয়ারের থেকে নিঃসৃত সিগন্যাল ,এয়ারপ্লেনের সিগন্যালকে বিঘ্ন ঘটাতে পারে যার ফলে ছোট বড় বিভিন্ন ধরনের সমস্যার সম্মুখীন হতে পারে বিমান।

ভিডিও দেখুন ঃ-মোবাইলে এয়ারপ্লেন মোড অপশন কেন থাকে

 

আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ কারণ, যার জন্যে আপনি মোবাইল এয়ারপ্লেন মোডে রাখবেন, সেটি হচ্ছে বিমানচালককে বিরক্ত করতে চান না। তাই আপনার উচিত ফোন এয়ারপ্লেন অপশন অন রেখে, বিমানের চালকদের তাদের কাজটা ঠিকঠাক করতে দেওয়া।

Please follow and like us: